12:35pm  Thursday, 22 Oct 2020 || 
   
শিরোনাম
 »  ২২ অক্টোবর; আজকের দিনে জন্ম-মৃত্যুসহ যত ঘটনা     »  দিনাজপুরে আগাম শীতকালীন সব্জি     »  দিনাজপুরে পৌর নির্বাচনে সম্ভাব্যপ্রার্থীদের দৌঁড়-ঝাপ !     »  শারদীয় দূর্গোৎসব উৎযাপন উপলক্ষে ৬ দিন বন্ধ থাকবে হিলি স্থলবন্দর     »  ২২ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার চ্যানেল আইতে দেখবেন     »  ক্যাশ আউট খরচ নিয়ে বিভ্রান্তিকর প্রচারণা অব্যাহত রেখেছে নগদ     »  বৃহস্পতিবার রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দাতা সম্মেলন      »  সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ও ব্যারিস্টার রফিক-উল হক লাইফ সাপোর্টে      »  দেশে আসলেই পিকে হালদারকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট     »  দুঃখ সইতে না পেরে ক্রাচে ভর দিয়ে এসে ট্রেনের নিচে পেতে দিলেন মাথা   



খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে সিনিয়ররা-জুনিয়রদের নির্যাতন করে
৩১ জানুয়ারি ২০২০, ১৭ মাঘ ১৪২৬, ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১



গত মঙ্গলবার রাতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে ইংরেজি ডিসিপ্লিনের পাঁচ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে দ্বিতীয় বর্ষের কয়েক শিক্ষার্থীর ওপর রাতভর নির্যাতন চালানোর অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ডিসিপ্লিনের প্রধানকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।

অভিযোগে বলা হয়, কয়েক দিন ধরে তাঁরা খেলার মাঠে এবং অন্যান্য জায়গায় তথাকথিত মিটিংয়ের নামে চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের কাছে মানসিক হেনস্তার শিকার হচ্ছিলেন; যার ক্ষোভ থেকে তাঁরা চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মশিউর রহমান রাজাকে মোবাইল ফোনে দুটি মেসেজ পাঠান।

লিখিত অভিযোগ অনুযায়ী, ওই খুদে বার্তার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে চতুর্থ বর্ষের মশিউর রহমান রাজা দ্বিতীয় বর্ষের আখতারুল ইসলামকে মোবাইল ফোনে বঙ্গবন্ধু হলের ২০৭ নম্বর কক্ষে ডেকে আনেন। ওই কক্ষে চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রাজ বর্মণ বিধান, মিনহাজুর রহমান, ফাহাদ রহমান অঝর ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী সাবেরুল বাশার নিরব উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, ২০৭ নম্বর কক্ষের ওই পাঁচজন মাদক সেবনের পর তাস খেলছিলেন। খেলা শেষে তাঁরা আখতারুলকে খুদে বার্তা পাঠানোর কারণ জানতে চেয়ে গালিগালাজ শুরু করেন। আখতার ভয়ে কারণ বলতে না চাইলে তাঁর ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু হয়। প্রথমে চুল ধরে তাঁকে কয়েকটি থাপ্পড় মারা হয়। তখন আখতার ভুল স্বীকার করে কাঁদতে কাঁদতে মশিউর রহমান রাজার পা ধরে ক্ষমা চান। এর পরও চলে নির্যাতন। নির্যাতনের একপর্যায়ে আখতারের মাধ্যমে ফোনে তাঁর সহপাঠী আশিকুর রহমানকে সেখানে ডেকে পাঠানো হয়। আশিক আসার পর তাঁকেও একই প্রশ্ন করা হয়। তিনিও খুদে বার্তা পাঠানোর জন্য ক্ষমা চান। কিন্তু তাঁকেও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজের পাশাপাশি মারধর করা হয়। রাত ৪টার দিকে দ্বিতীয় বর্ষের আরেক শিক্ষার্থী মহিদুজ্জামানকে ডেকে নেওয়া হয়। তাঁর সামনেও আশিক ও আখতারকে শারীরিক নির্যাতন করা হয়। এরপর ভোর সাড়ে ৫টার দিকে দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসানকে একই কক্ষে ডেকে একই প্রশ্ন জিজ্ঞেস করে গালিগালাজ করাসহ তাঁর অভিভাবকের ফোন নম্বর নেওয়া হয়। ফোন নম্বর দেওয়ার পরও মশিউর রহমান রাজা তাঁকে থাপ্পড় মারেন এবং রাজ বর্মণ বিধান তাঁকে কানে আঘাত করেন। চুল ও সোয়েটারের কলার ধরে টানাহেঁচড়া করেন।

অভিযোগ অনুযায়ী, সকাল ৬টায় মহিদুজ্জামান ও আশিকের মাধ্যমে দ্বিতীয় বর্ষের তানজিম হাসান অপু, হাবিবুর রহমান ও রাকিব হাসানকে ২০৭ নম্বর কক্ষে ডেকে নেওয়া হয়। সবাই উপস্থিত হলে মেহেদি হাসানকে তাঁর মা-বাবা তুলে গালিগালাজ করেন বিধান। শেষ পর্যায়ে তাঁদের মধ্য থেকে পাঁচজনের জোরপূর্বক লিখিত বিবৃতি ও স্বাক্ষর নিয়ে তা ভিডিও ধারণ করে রাখা হয়।

ইংরেজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক এ আর এম মুস্তাফিজুর রহমান জানান, লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘শিক্ষকদের সভায় অভিযুক্তদের নামে আগেও একাধিক অভিযোগ উঠেছে।’

অভিযুক্তদের মধ্যে মশিউর রহমান রাজা বলেন, ‘সিনিয়র-জুনিয়রদের মধ্যে ভুল-বোঝাবুঝি হতেই পারে। অভিযোগ করার মতো কিছু ঘটেনি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান বলেন, ‘যে অভিযোগ উঠেছে, সেটা এক প্রকার সন্ত্রাসী কার্যক্রম। অভিযোগ প্রমাণিত হলে দোষীদের কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।’


এই নিউজ মোট   322    বার পড়া হয়েছে


পুরুষ নির্যাতন



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.