07:16am  Friday, 17 Sep 2021 || 
   
শিরোনাম
 »  ২০০ নারীর ছবি-ভিডিও নিয়ে ব্ল্যাকমেইল     »  ভিসা-ইকামার মেয়াদ বিনা মূল্যে আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়েছে সৌদি আরব     »  আগামী সাত দিনের মধ্যে সব অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট     »  লিটন মিয়া চিকিৎসক পরিচয়ে বিয়ে করে বিদেশে পাচার করে     »  মান্দায় ২১ বছর ধরে দাঁড়িয়ে আছে ব্রিজ     »  গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নতুন করে আরও ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে     »  ভারত সরকারের উপহার দেওয়া চতুর্থ চালানের আরও ২৯টি লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স বেনাপোল স্থলবন্দরে প্রবেশ করেছে।     »  ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩২১ জন হাসপাতালে ভর্তি     »  গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নতুন করে আরও ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে     »  সড়ক পবিহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ভারত সরকার কথা দিয়েছে সীমান্তে আর হত্যাকাণ্ড ঘটবে না।   



মেয়র আরিফের বক্তব্যে ক্ষোভের অনলে পুড়ছে আওয়ামীলীগ



কাওছার আহমদ, সিলেট: গত ৫ সেপ্টেম্বর বিএনপির প্রয়াত নেতা ও সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীর দিনে মৌলভীবাজারে এক স্মরণসভায় সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী আওয়ামী লীগ সরকারের সমালোচনা করে একটি বক্তব্য দেন। মেয়রের এই বক্তব্যের পর সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ বাগযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পাশাপাশি বিভিন্ন গণমাধ্যমেও বিবৃতি পাঠিয়ে মেয়রের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। মহানগরের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের পাশাপশি তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝেও ক্ষোভ বিরাজ করছে বলে জানা গেছে। মাঠের কর্মীদের বক্তব্য হলো মেয়র আরিফ সরকারের সবধরনের সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে এমন শিষ্ঠাচার বহিভর্’ত  বক্তব্য দিতে পারেননা।

টানা দ্বিতীয় মেয়াদে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন আরিফুল হক চৌধুরী। বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিজয়ী হয়ে চমক সৃষ্ঠি করেছিলেন। তিনি এখন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্যের দায়িত্বে আছেন। এর আগে জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক ও মহানগরের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছিলেন। বিএনপি সমর্থিত মেয়র হলেও সিলেটের উন্নয়নে কোন প্রকার প্রতিহিংসার শিকার হতে দেখা যায়নি তাঁকে। বরং সরকার দলের মন্ত্রীরা নগরীর উন্নয়নে সকল রকম সহযোগিতা করে চলেছেন। তিনিও ‘মধ্যম’ অবস্থান ধরে রেখেই এগিয়েছেন কৌশলে। অবশ্য মন্ত্রীদের সাথে আরিফের এমন সখ্যতা সহজ ভাবে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মেনে না নিলেও বিভিন্ন সভা সমাবেশে বসতেন এক মঞ্চেই। করতেন খোশগল্প। এসব সভা সমাবেশের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে ‘স¤প্রীতি’ হিসেবেই উলে­খ করতেন সিলেটের মানুষ। কিন্তু হঠাৎ করে মেয়রের এক বক্তব্যে সিলেটজুড়ে শুরু হয়েছে বাকযুদ্ধ।

জানা যায়,গত ৫ সেপ্টেম্বর এম সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীর দিনে মৌলভীবাজারে স্মরণসভায় সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী আওয়ামী লীগ সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘এদের চামড়া এতো শক্ত হয়েছে যে, গণ্ডারের চামড়া থেকে আরও বেশি। এদের গায়েও কিছু লাগে না।’ আর এ বক্তব্যের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার শুরু করেছেন তাঁর অনুসারীরা। তবে মেয়র আরিফুল হকের এমন বক্তব্যে ক্ষেপেছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। তাৎক্ষনিক নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট করে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন মেয়র আরিফুল হকের নাম উল্লেখ না করে একজন উচ্চ পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি লিখে বলেন বিগত দিনে নগরের উন্নয়নে আওয়ামী লীগ সরকারের দেওয়া বরাদ্দের কথা ভুলে যাওয়া রাজনৈতিক চতুরতা নয়কি?’ আর তাঁর এ পোস্টে মেয়র আরিফুল হকের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানান নেতাকর্মীরা। মেয়রের নাম উল্লেখ না করার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেনকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন একজন শিক্ষক হিসেবে নাম লিখাটা সমীচীন মনে করেননি।

এদিকে মেয়র আরিফুল হক ৫ সেপ্টেম্বর সাইফুর রহমানের স্মরণ সভায় যে বক্তব্য দেন তাঁর একটি ভিডিওতে দেখা যায় তিনি বলছেন, ‘এই অঞ্চলে সাইফুর রহমানের যে স্মৃতিগুলো থেকে সাইফুর রহমানের নাম মুছে ফেলে দেয়া হয়েছে, তেমনি আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়ার নামও মুছে ফেলা হয়েছে। আমাদের নেতা শহীদ জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলছে। কিন্তু মুছে ফেললেও মানুষের মুখ থেকে নতুন নাম কিন্তু উচ্চারণ করাতে পারছে না। মানুষ এখনো জানে সেই কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সেই ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, আজকে যেটা গর্ব করে বলেন বিভাগীয় স্টেডিয়াম, যা-ই বলেন না কেন এই অঞ্চলে বলতে গেলে অনেক বলতে হবে। আমি শুধু বলবো, এদের সম্পর্কে কিছু বলে লাভ নেই। এদেরকে ধিক্কার দেয়া ছাড়া কোনো বক্তব্য আমার মুখেও আসতেছে না। এদের চামড়া এতো শক্ত হয়েছে যে, গণ্ডারের চামড়া থেকে আরও বেশি। এদের গায়েও কিছু লাগে না।’ এ বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এতোগুলো মামলা নিয়েও এখনো শান্তিতে আছি। কিন্তু তারা বিড়ালের মতো, ইতোমধ্যে ৭০ শতাংশই তাদের স্ত্রী-সন্তানকে বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে। তাই আমাদের আর বসে থাকলে হবে না। শক্ত আন্দোলনে যেতে হবে। মিটিং মিছিল নয়, সিদ্ধান্ত নিয়ে একটা কঠোর আন্দোলনে নামতে হবে।’

এদিকে আরিফুল হক চৌধুরীর এমন বক্তব্যের পর পরই মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বিগত সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানো আসাদ উদ্দিন আহমদ নিজের ফেসবুক ওয়ালে লিখেন, ‘দুঃখ হয়, এত সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার পরও আপনি আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের গণ্ডারের চামড়ার সাথে তুলনা করলেন। আর কি পেলে আপনার মধ্যে সামান্যতম কৃতজ্ঞতাবোধ জন্ম নেবে?

অপরদিকে শনিবার বিকালে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে মেয়রের এমন বক্তব্যে অসৌজন্যমূলক ও শিষ্টাচার বহির্ভূত উলে­খ করে সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন বলনে, ‘জনগণই আওয়ামী লীগের শক্তির ভিত্তি। অতীতে আওয়ামী লীগ জনগণকে সাথে নিয়ে বিএনপি-জামাত জোটের নৈরাজ্যিক অগ্নিসন্ত্রাসকে মোকাবিলা করেছে। সিটি মেয়রের ছলচাতুরীর রাজনীতি ও উস্কানিমূলক বক্তব্যের জবাব হচ্ছে আওয়ামী লীগ ষড়যন্ত্র ও হুমকি ধামকির রাজনীতিকে ভয় পায় না।’ বিবৃতির বিষয়ে সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ এ প্রতিবেদককে বলেন, আমাদের যেটা দেয়ার দিয়েছি,আওয়ামীলীগ গণমানুষের রাজনীতি করে। আর মেয়রকে ইঙ্গিত করে বলেন ‘গাঙ নষ্ট না কাউয়া নষ্ট’।

মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বলেন,তাঁর এ বক্তব্য কেবল রাজনৈতিক মতাদর্শ ও একান্ত রাজনৈতিক বক্তব্য। তিনি তো কারও নামও উলে­খ করেননি এবং রাজনৈতিক মতাদর্শের  জায়গা থেকেই যা বলার বলেছেন।

মান্দায় বেড়া দেয়া নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে, আহত ৯ আটক ১,,


এই নিউজ মোট   666    বার পড়া হয়েছে


রাজনীতি



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.